মাস্ক পরে কতটা বাঁচা যাবে করোনা ভাইরাসের হাত থেকে? জেনে নিন…

চিন থেকে শুরু করে গোটা বিশ্ব আতঙ্ক ছড়াচ্ছে করোনা ভাইরাস। চিন ছাড়াও আরও ১২টি দেশে ছড়িয়েছে এই ভাইরাস। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৩০৪ জনের। আক্রান্ত ১৪ হাজার ৬০০ জনের বেশি। ভারতেও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত চিহ্নিত করা গিয়েছে। এর ফলে স্বাভাবিক ভাবেই চিন্তিত গোটা বিশ্ব। আরও বেশি চিন্তার কারণ হল, করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচার উপায় এখনও মেলেনি।

করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার প্রধান লক্ষণগুলি হল, শ্বাসকষ্ট, জ্বর, কাশি, নিউমোনিয়া ইত্যাদি। এটি শরীরের এক বা একাধিক অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ নিষ্ক্রিয় করে আক্রান্ত ব্যক্তির মৃত্যু ঘটাতে পারে।

এ দিকে করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে বিজ্ঞানীরা এখনও পর্যন্ত তেমন কোনও আশার আলো দেখাতে পারেননি। তবে বিজ্ঞানীরা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষার উপায় হিসেবে মাস্কে মুখ-নাক ঢেকে বেরোনোর পরামর্শ দিচ্ছেন।

তবে কী ভাবে মাস্ক ব্যবহার করে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব জেনে নিন…

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যদি সঠিক আবহাওয়া ও সঠিক উপায়ে মাস্ক ব্যবহার করা হয়, এই ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়া ঠেকানোর ক্ষেত্রে তা কার্যকর হতে পারে।

তবে চিন ছাড়া এখনও পর্যন্ত অন্য কোন দেশে মাস্ক ব্যবহারের মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

দেখে নিন বিশেষজ্ঞদের মতে কোন ধরনের মাস্ক পরবেন:

জর্জিয়ার আটলান্টার ইমোরি ইউনির্ভাসিটি স্কুল অব মেডিসিনের সহকারী প্রভাষক মেরিবেথ সেক্সটন জানান, সর্বাধিক পরিহিত, সস্তা এবং ডিসপোজেবল মাস্ক, যা সার্জিক্যাল মাস্ক হিসেবে পরিচিত, এটি করোনাভাইরাসকে আটকাতে পারে, তবে নির্মূল করতে পারে না।

এ ধরনের সার্জিক্যাল মাস্ক সাধারণত হলুদ বা নিল রংয়ের হয়ে থাকে যা রাবারের মাধ্যমে শক্তভাবে কানের মধ্যে আটকানো যায়। এর মাধ্যমে মুখ, চিবুক ও নাক ঢাকা সম্ভব হয়। আর এসব মাস্কের ওপরে একটি লোহার স্ট্রিপ থাকে যা সহজে মুখ-নাক ঢেকে রাখে।

তবে বিশেষজ্ঞরা মাস্ক পরার পাশাপাশি সেটি খোলার বিষয়েও সমান গুরুত্ব দিয়েছেন। মাস্ক খোলার সময় খেয়াল রাখা উচিত যেন এতে কোনও ময়লা না লাগে এবং একবারে খোলা যায়।

One Reply to “মাস্ক পরে কতটা বাঁচা যাবে করোনা ভাইরাসের হাত থেকে? জেনে নিন…”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.