‘ট্রিপল’ সেঞ্চুরিতে তামিমের ইতিহাস

বিসিএলে পূর্বাঞ্চলের হয়ে ট্রিপল সেঞ্চুরি তুলে নিলেন তামিম ইকবাল। দ্বিতীয় বাংলাদেশি হিসেবে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ট্রিপল সেঞ্চুরি পেলেন জাতীয় দলের এ ওপেনার

শুভাগত হোমের বলটি স্কয়ার লেগ ঠেলে দিয়েই তামিম ইকবালের দৌড়। ২৯৯ রান থেকে স্কোর বোর্ডের সংখ্যাটা হয়ে গেল ৩০০। রকিবুল হাসানের পর দ্বিতীয় বাংলাদেশি হিসেবে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ট্রিপল সেঞ্চুরি করলেন তামিম। তবে এমন কীর্তির পরও তামিমের উদ্‌যাপনটা হলো সাধারণই। কেবল ছোট্ট করে ব্যাট উঁচিয়ে মুহূর্তটা উদ্‌যাপন করলেন। তবে ড্রেসিং রুম থেকে বেরিয়ে আসা সতীর্থ থেকে শুরু করে মাঠে উপস্থিত সবার করতালিতে মুহূর্তটা কিন্তু হয়ে রইল স্মরণীয়ই। ট্রিপল সেঞ্চুরি করেই বসে থাকেননি তিনি। ছাড়িয়ে গেছেন রকিবুলকেও। ৩১৩ করতেই তামিম হয়ে গেলেন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস খেলা বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান। এই প্রতিবেদন লেখার সময় তামিম অপরাজিত ৩৩৪ রানে।

তামিমের ক্যারিয়ারের প্রথম ট্রিপল সেঞ্চুরির অপেক্ষাটা সকাল থেকেই। কাল দিন শেষ করেন অপরাজিত ২২২ রানে। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে দ্বিতীয় বাংলাদেশি হিসেবে ৩০০ রানের মাইলফলক তামিমের সামনে। সকাল থেকেই দুই নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন ও হাবিবুল বাশার মাঠে। কিছুক্ষণ পর এসেছেন আকরাম খান। অন্যান্য দিনের চেয়ে সাংবাদিকের সংখ্যাও বেশি। গ্যালারিতে দর্শকের সংখ্যাও বেশি। গতকাল তামিমের বাউন্ডারির পর হাততালি দেওয়ার কেউ ছিল না। আজ বল বাউন্ডারিতে গড়াতেই দর্শকেরা হাততালি দিয়ে অভিনন্দিত করেছেন তামিমকে।

গতকাল তামিম ছিলেন বেশি আগ্রাসী। আজ খেলেছেন ধীরেসুস্থেই। এভাবেই মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত করেছেন ২৭৯ রান। এর পরেও তামিম ছিলেন সতর্ক। মধ্যাহ্ন বিরতির পর ১৩১তম ওভারে শুভাগত হোমের স্পিনে লেগ সাইডে ফ্লিক করে মারা বাউন্ডারিটি তামিমকে ২৯০-এর ঘরে নিয়ে যায়। দ্বিতীয় সেশনে এটিই তামিমের প্রথম বাউন্ডারি।

পরের ওভারেই মোস্তাফিজ রহমানের বলে কাট শট খেলার সুযোগ পেয়ে যান। এক চারে ৩০০ থেকে মাত্র ২ রান দূরে পৌঁছে যান তামিম। এরপর আবার অপেক্ষা। ১০টি ডট বল খেলার আবার সেই মোস্তাফিজকে কাভারে ঠেলে এক রান নিয়ে ২৯৯ রানে পৌঁছে যান তামিম। ততক্ষণে ড্রেসিং রুম থেকে বেরিয়ে এসেছেন তামিমের সতীর্থেরা। তাইজুল, আফিফ, মুমিনুল, আশরাফুলরা অপেক্ষায়। এরপর সতীর্থদের বেশিক্ষণ অপেক্ষাও করাননি তামিম। ইনিংসের ১৩৫তম ওভারে ৪০৭ বল খেলে ট্রিপল সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন এই বাঁ হাতি। ঢুকে গেলেন ইতিহাসে।

গোটা ইনিংসে এমন নির্ভার হয়েই ব্যাট করেছেন পূর্বাঞ্চলের এ ওপেনার। ছবি: শামসুল হক

৩০০ ছোঁয়ার পর তামিম অভিনন্দন পেলেন রকিবুলের কাছ থেকেও। কাকতালীয়ভাবে তামিমের প্রতিপক্ষ মধ্যাঞ্চলের হয়ে খেলছেন ২০০৭ সালে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ৩০০ করা রকিবুল। প্রায় ১৩ বছর পর তাঁর একাকিত্ব কাটালেন তামিম। মুহূর্তটা দারুণভাবেই উপভোগ করলেন মাঠে উপস্থিত দর্শকেরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.